নকিব মুকশি’র কবিতা

করবীর তিমিসুর

৩.
মানুষ ফুড়ৎ করে পুরোনো আলোকে
আবার ফুড়ৎ করে আঁধার কপাটে…
পড়ে থাকে মাটি ঘেঁষে হলুদ পালক
সমুদ্রের তীর ছেড়ে মৎসের ভাসান
অশপ্ত শাদার ফেনা যেন সার্ফবার্ড…

পাখির বাসায় কিছু অ্যাফিডের মুখ,
শরীরী খোদাই দেখি; তবু ছুটে চলি
মায়ার ম্যাজিক ভুলে অভিশ্রীনগর…
হাসির আড়ালে ঝরে জামের জিন্দেগী
সুখের আরক বেঁকে ফেনিল জহর…

৩৯.
পান্নার অনাবে নাচে অদ্ভুত কাসিদ
বেশ্যার বুকের তিল নুয়ে গঁদ মুখী…
আমার তফাৎ তাই দূরে অনাজনে
এর চেয়ে ঢের ভাল অই বুনোলতা
অমুখোশী প্রতিলের মিহি আপ্যায়ন…

মানুষ ঘুমালে জাগে বাঘের হালুম
নন্দন পেয়াদা যেন তাড়িত হরিণ…
ওথ ফুল ঝরে যায় পদে দিনমান,
পড়ে থাকে ইতিমুখ বেলির উদ্যান
সর্পের লাহান বাঁকে নটীর কোমর…

নকিব মুকশি