আদিত্য আনামের ক্রিস্টাল কুইন সিরিজ

ক্রিস্টাল কুইন-০১

ক্রিস্টাল কুইন, একটি সরলতম দুপুরে
তোমাকে উপহার দিতে চেয়েছিলাম আমি
কতোগুলি সামুদ্রিক চুমু!

ক্রিস্টাল, ধরো আজ সেই দুপুর এসে
কড়ানাড়লো তোমার গোপনতম দরজায়,
তুমি দরজা খুলে দিতে দিতে হঠাৎ
খেয়াল করলে এলোমেলো বিছানায়
শুয়ে আছি আমি
এবং কিঞ্চিৎ পর তুমি আবিষ্কার
করলে নিজেকে আমার ভিতরে
বহুক্ষণ ধরেই আছো!
এরপর তোমার মনে পড়লো
সরলতম দুপুরটি এসেছিলো অনেক পূর্বেই।
শুধু তুমি হারিয়ে গিয়েছিলে সঙ্গমরত
ঘুমের গহিনে।

ক্রিস্টাল কুইন, আমি এরচেয়ে বেশি
উষ্ণতা ছড়াতে পারছি না,
তুমি বরং বন্ধ কোরে দাও আরেকটি
ভেতরগত জানালা,
আমরা আবার জ্বালিয়ে দিলাম
তাপবিহীন নিরিবিলি আগুন।
হ্যাঁ, এইভাবেই আরো কিছুক্ষণ আমরা
ওয়েট কোরতে পারি
দ্বিতীয় প্রদীপটি জ্বলে ওঠা পর্যন্ত।

-‘নদীদের সাথে আমার কোনো
সখ্যতা হয়ে ওঠেনি, তুমি বরং নদী
বিষয়ক কয়েকটি পংক্তি এঁকে দিতে
পারো আমার কোমলতম জিউভায়।’
এই কথা বোলে তুমি বাহু আলোক
কোরে আমাকে একে একে দেখালে
তোমার সমস্ত মরুপথ।
আমি এককতম নদী নিয়ে তোমার
মরুপথে প্রবেশ কোরতেই জ্বলে উঠলো
সেই দ্বিতীয় প্রদীপ।

ক্রিস্টাল কুইন, আমি খুব দুঃখিত
নদীটি ধেয়ে যাচ্ছে সমুদ্রের দিকে,
আমরা বরং সামুদ্রিক চুমুতে লিপ্ত হই।


ক্রিস্টাল কুইন-০২

লিটারেরি আমি তোমাকে চুমু খাই
কাঁমড়াই এবং ক্রমাগত জড়িয়ে ধরি
কবিতায়, শব্দে, বাক্যে ও অক্ষরে।
আমার আজন্ম নিঃসঙ্গ হাতজোড়া
বাড়িয়ে দেই তোমার হৃদয় বরাবর
তোমার উষ্ণতা ও বিষণ্ণতা বরাবর।

কাইন্ডলি ইউ ট্রাস্ট মি ডার্লিং
রিয়েলি আই ওয়ান্ট টু ফাক ইউ
অ্যান্ড ইয়োর স্যাডনেস।
প্রিয়তম মাগি আমার বুকে আসো হুইসেল দিয়ে!
দ্যাখো, সেখানে হৃদয়ভর্তি তোমার তৈলচিত্র।
লোনলি চোখের দিকে তাকাও আমার
এবং লুফে নাও সমস্ত সিক্রেট আদর
অনাদরে জমিয়ে রেখেছি শুধু তোমার জন্যই।

আদিত্য আনাম